কিম জং-উন

কিম জং-উন এর জানা অজানা তথ্য 2021

আসসালামুয়ালাইকুম GAZIPUR_TIME এ আপনাদের স্বাগতম । আজ আমি আপনাদের সাথে শেয়ার করবো কিম জং-উন এর জানা অজানা তথ্য ।গোটা বিশ্বের এমন কেউ নেই যে সে চিনে না এই কিম জং-উন কে ।

 

তার সম্পর্কে

বিশ্ব বরাবর ই কৌতূহল  ই কিম জং-উন কে  নিয়ে , উত্তর-কোরিয়ার এই এক নায়ক নিজেকে লুকিয়ে রাখেন রহস্যের আড়ালে । পুরো বিশ্ব  যুখন করোনা নিয়ে ব্যাস্ত তখনো আলোচনার বাহিরে ছিলেন না কিম জং-উন । উত্তর-কোরিয়ার এই রহস্য পুরুষ নিজেকে রহস্যের চাদরে ঢেকে রাখতে পছন্দ করেন । কিম জং-উন শুধু নিজেকে নয় তার দেশের অনেক কিছুই আড়াল করে রাখেন তিনি । উত্তর-কোরিয়া তে কখন কি ঘটছে সেটা বাহিরে থেকে বোঝা খুব কঠিন । কিছুদিন আগে একটা খবর প্রকাশ হয়েছিলো যে কিম জং-উন কি মারা গেছে এটা নিয়ে । সে মারা গেছে নাকি সেটা ও ভালভাবে জানতো না কেউ ,পরে উত্তর কোরিয়ে থেকে জানানো হয়েছে সে মারা  যাননি । কিম জং-উন এর সম্পর্কে আরো জানতে ক্লিক করুন।

 

কিম জং-উন এর চলাফেরা

কিম জং-উন কিভাবে থাকেন বা কিভাবে চলাফেরা করেন সেটা নিয়ে সারা বিশ্বের মাথা-ব্যাথার শেষ নেই । তার পিছনে গোয়েন্দা লাগিয়ে রেখেছে আমারিকা এবং পাশের দেশ দক্ষিন-কোরিয়ার চোখ সব-সময় তাক করা থাকে এই আলোচিত ব্যাক্তি কিম জং-উন এর উপর । সে যা কিছু করুক না কেনো সেটা নিয়ে অবশ্যই আলোচনা হবে ।একবার কিম জং-উন কে তার দেশের সাদা পাহাড়ে সাদা ঘোড়া নিয়ে দেখা গিয়েছিলো । জানা গেছে সাদা এই পাহাড়ে তার দাদার সমাধি রয়েছে । অনেকেই ধারনা করে ওখানেই তার বাবার জন্ম হয়েছিলো ।এসব নানা কারনে উত্তর-কোরিয়ার এই পাহাড় অনেক গুরুত্বপূর্ণ ।

 

উত্তর-কোরিয়ার রাষ্ট্রয়ী টিভি চ্যানেল এ দেখানো হয়েছিলো সাদা ঘোড়া নিয়ে পাহাড়ে উঠার দৃশ্য । কিছু সময় পর দেখা গেলো তার সঙ্গে আরো কয়েকজন, পরে দেখা যায় তার সাথে এসেছে তার স্ত্রী । দুজনের মন খুলা ছবি দেখা গিয়েছে পাহাড়ের উপর । তার এই পাহাড়ে যাওয়া নিয়ে শুরু হলো গুঞ্জন , সবার মুখে একটাই কথা তিনি কেনো গেলেন সেই পাহাড়ে ? নিশ্চয় কোন গোপন মিশন আছে । এ নিয়ে কিম জং-উন কিছু বলেন নি । এক কথায় বলা যায় উত্তর কোরিয়ার প্রায় কিছু অন্য দেশের কাছে রহস্য । সেখাঙ্কার গনমাধ্যম চাইলে ও তাদের দেশ সম্পর্কে কোন তথ্য নিউজ আকারে সব দেশ কে জানাতে পারবেনা কারন তারা সরকার নিয়ন্ত্রিত ।

 

উত্তর-কোরিয়া বিষয়ে পুরো বিশ্ব  থাকে অন্ধকারে এমনকি দেশ টির নেতা কিম জং-উন এর ব্যাপারে ও । তিনি কবে জন্মগ্রহন করেছিলেন সেটা পর্যন্ত সঠিক কেউ জানেনা , এই তত্থ্য জানার জন্যে যেতে হয় বিশ্লেষক দের কাছে । বিশ্লেষক রা কেউ মনে করে কিম জং-উন জন্মেছিলেন ১৯৮৩ সালের ৮ ই জানুয়ারি আবার কেউ মনে করে ১৯৮৪ সালের ৮ ই জানুয়ারি । কিন্তু কিম জং-উন নিজে তার জন্মসাল হিসেবে ব্যাবহার করেন ১৯৮২ সাল । কিম জং-উন এর এই তথ্যে বিশ্লেষক দের সন্দেহ রয়েছে । ১৯৮২ সাল ছিলো তার দাদার জন্মের ৭০ বছর এবং তারা বাবার ৪০ বছর । তার বাবা এবং দাদার সাথে মিলিয়ে কাগজে-কলমে তার জন্মসাল লেখা হয় ১৯৮২ সাল ।

 

কেবল তার জন্মের সাল নয় , তার জীবনের অনেক কিছু নিয়েই বিভ্রান্তি রয়েছে দুনিয়ায় । খুব সম্ভবত তাকে এবং তার দেশকে নিয়ে বোকা বানাতে পছন্দ করেন তিনি । সে দুনিয়ার ক্ষমতাধর নেতাদের নিয়ে যেরকম ভাবে খেলেছেন সেরকম খেলা তার বাবা এবং দাদার পক্ষে সম্ভব হয়ে ওঠেনি । তার দাদা দক্ষন-কোরিয়া থেকে উত্তর-কোরিয়া কে আলাদা করে নেন । কিম এর বাবা ও ছিলেন উত্তর-কোরিয়ার একজন ক্ষমতাধর  নেতা । কিম এর বাবা মারা যাওয়ার পর তার অন্য ভাই থাকতে কেনই বা তাকে ক্ষমতা দেওয়া হলো সেটা নিয়ে ও রয়রছে অনেক বিতর্ক । কিম এর বাবা তার ৮তম জন্মদিনে উপহার হিসেবে দেন সেনাবাহিনির জেনারেল এর একটি পোশাক উপহার দেন , তার পর থেকে সবায় বুঝলো পরের রাস্ট্রনায়ক কে । তার বাবার সম্পর্কে জানতে ক্লিক করুন । তার ছোটবেলার জীবন ও কেটেছে আড়ালে । তখনকার সাঙ্গাবাদিক  রা জানায় কিম ছিলেন খুব ই মেধাবি সে জন্যে তার বাবা তাকে পছন্দ করতেন । তার ভাই ছিলেন একটু মেয়েলি স্বভাবের ,  তাই তাকে একটু কম ভরসা করতে তার বাবা । এর পর থেকে কিম এর রাজনৈতিক উত্থান শুরু । কিন্তু তার সহপাঠিরা বলেন স্কুল এ পড়ার সময় মোটে ও মেধাবি ছিলেন না তিনি ।

পৃথিবীর সবচেয়ে গোপন ও নিষিদ্ধ ৩টি জায়গা সম্পর্কে জেনে নিন

আমাদের ফেসবুক পেজ এ লাইক দিয়ে সাথে থাকুন পরবর্তী আপডেট এর জন্যে
ফেসবুক পেইজ_লিঙ্ক

Leave a Comment

Your email address will not be published.