পৃথিবীর সবচেয়ে গোপন ও নিষিদ্ধ ৩টি জায়গা

পৃথিবীর সবচেয়ে গোপন ও নিষিদ্ধ ৩টি জায়গা

আসসালামুয়ালাইকুম, আজ আমরা কথা বলবো পৃথিবীর সবচেয়ে গোপন ও নিষিদ্ধ ৩টি জায়গা নিয়ে ।

এই পৃথিবীর চারদিকে ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে বিভিন্ন রহস্য । আর একটা কথা চরম সত্য যে মানুষ জন্ম থেকেই রহস্যের দিকে একটু বেশিই টান থাকে । আমরা চাইলে পৃথিবীর  যেকোন দেশে যেতে পারবো । কিন্তু পৃথিবীর এমন কিছু জায়গা আছে যেখানে মানুষ চাইলে ও যেতে পারেনা । এগুলো জায়গা তে হাতেগোনা কিছু মানুষ যেতে পারে । সেই জায়গা গুলোর নিরাপত্তা খুবই কঠোর । সেই জায়গা গুলোতে যাওয়া তো দূরের কথা , সেই যাইগা গুলো সম্পর্কে বেশিরভাগ মানুষ ই জানেনা । পৃথিবীর   ভিতরে এই রহস্যময় জায়গা তে কি আছে বা কি কাজ করা হয় সেটা শুনলে হয়তো আপনারা বিশ্বাস করবেন না।সেখানে আপনি হয়তো কখনো যেতে পারবেন না , কিন্তু সেই জায়গা সম্পর্কে জেনে তো নিতে পারবেন ? তাইনা”””? কথা না বাড়িয়ে আজ আমরা জানবো পৃথিবীর সবচেয়ে গোপন ও নিষিদ্ধ ৩টি জায়গা সম্পর্কে ।

 

এরিয়া ৫১

পৃথিবীর কিছু কিছু রহস্যময় জায়গা য়াছে যেগুলো মানুষ সৃষ্টি করেছে , আবার কিছু কিছুই জায়গা আছে যেগুলো প্রাকৃতিকভাবে সৃষ্টি হয়েছে । মানুষের সৃষ্টির মধ্যে সবচেয়ে রহস্যময় জায়গা হলো এরিয়া ৫১ এটি আমারিকার নাভাডা অঙ্গরাজ্যের সামরিক স্থাপনা । এই এলাকায় চাইলে যে কেউ প্রবেশ করতে পারেনা ।  এই এলাকায় সাধারন মানুষের প্রবেশ সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ । শুধু তাই নয় , এই এলাকার প্রবেশ এর রাস্তা গুলো তে লেখা আছে এই এলাকায় প্রবেশ এর চেষ্টা করলে তাকে গুলি করা হবে । তাই এই জায়গা টি নিয়ে পুরো পৃথিবীর  মানুষের কৌতুহল । কি আছে এর ভিতরে আর কি কাজ করা হয় এখানে ,যার কারনে তাদের নিদিষ্ট লোকজন ছাড়া কাউকে সেখানে ঢুকতে দেওয়া হয়না । এমন প্রশ্ন সবার মনে ঘুরপাক খাবে এটাই স্বাভাবিক । এরিয়া ৫১ এমন একটি সামরিক ঘাটি যার লোকজন সরাসরি প্রেসিডেন্ট এর কাছে দায়বদ্ধ ।

আজ পর্যন্ত এরিয়া ৫১ এর ভিতরে বাহিরের কেউ ঢুকতে পারেনি । কেউ ঢুকতে পারেনি বললে ভুল হবে । বলা যায় যারা ঢুকেছিলো তারা কেউ জীবন নিয়ে ফিরে আসতে পারেনি , সবায় লাশ হয়ে ফিরে এসেছে । আমারিকা এই সামরিক ঘাটি এতটাই গোপন করে রেখেছিলেন যে ” আমারিকা ও সোভিয়েত ইউনিয়ন এর মধ্যে স্নায়ুযুদ্ধ চলাকালিন এটির সম্পর্কে সোভিয়েত ইউনিয়ন বার বার অভিযোগ করার পরে ও এর অস্তিত্ব স্বীকার করেনি ওয়াশিংটন। ” অবশেষে ২০১৩ সালের ১৮ আগস্ট আমারিকার সরকার প্রথম স্বীকার করে যে এরিয়া ৫১ এর অস্তিত আছে । এই ধরনের জায়গা নিয়ে মানুষের মধ্যে রয়েছে অনেক জল্পনা ও কল্পনা । আপনি যদি এরিয়া ৫১ এর বিষয়ে আরো বিস্তারিত জানতে চান তাহলে এখান থেকে দেখতে পারেন ।

এরিয়া৫১_সম্পরকে_বিস্তারিত

 

ইসি গ্রান্ড মন্দির

ইসি গ্রান্ড ম অন্দির জাপানে অবস্থিত । এটি জাপানের সবচেয়ে পবিত্র এবং গোপনীয় জায়গা হিসেবে ধারনা করা হয় । ধারনা করা হয় খ্রিষ্টপূর্ব ৪ সালে এই গ্রান্ড মন্দির টি নির্মাণ করা হয় । সূর্যের দেবি আমাতেরাসুর উদ্দেশ্যে উৎসর্গ কৃত এই মন্দিরে আজ পর্যন্ত জাপানের রাজপরিবার এবং ধর্মযাযক ছাড়া কেউ প্রবেশ করতে পারেনি । এই মন্দির টি প্রতি ২০ বছর পর পর নতুন করে নির্মাণ করা হয় । ইতিহাসবিদদের ধারনা এখানে জাপানিজ সম্রাজ্জের মুল্যবান এবং হাজার বছরের পুরনো নথিপত্র লুকানো আছে  যা বিশ্বাসীর কাছে এখনো অজানা । জাপানের রুপকথার বহুল প্রচলিত পবিত্র আয়না এই মন্দিরে আছে বলা অনেকেই মনে করেন , এই আয়নায় নাকি অতিত, ভবিষ্যৎ, বর্তমান সব দেখা যায় । এই মন্দিরে জনসাধারনের প্রবেশ এর অধিকার না থাকায় এটা সত্য নাকি মিথ্যা সেটা যাচায় করা সম্ভব হয়নি । জাপানের রাজ পরিবার থেকে জাপানের এই পবিত্র আয়না সম্পর্কে জানানো হয়নি । ইসি গ্রান্ড মন্দির সম্পর্কে আরো জানতে এই_লিঙ্ক এ ভিজিট করন

 

ক্লাব ৩৩ অব ডিজনিল্যান্ড

বিশ্বের সবচেয়ে বিনোদন স্পট পার্ক হিসেবে ডিজনিল্যান্ড এ রয়রছে আলাদা এক পরিচয় । শুধু বিনোদনের জন্যেই এই পার্কে বিশ্বের নানা প্রান্ত থেকে প্রতিদিন ছুটে  আসে অনেক মানুষ । মূল ডিজনিল্যান্ড সবার জন্যে উন্মুক্ত হলে ও এখানকার একটি স্থান অনেক গোপন । এখানে কেউ চাইলেই ঢুকতে পারেনা । পৃথিবীর সবচেয়ে গোপন ও রহস্যময় স্থানের তালিকায় উঠে আসা একমাত্র ব্যাক্তিগত বা প্রাতিষ্ঠানিক পর্যায়ের স্থান এটি । বাকিগুলোর সাথে কোন না কোন দেশ অথবা কোন গোয়েন্দা সংস্থা জড়িত । এর প্রতিষ্ঠাতা হলেন ওয়াল্ট ডিজনি । তার খুব প্রিয় এই ক্লাব টি ভিষন ভাবে সংরক্ষিত করে রাখা হয় । এখানে প্রায় সবসময় মদ বিক্রয় করা হয় । তবে কাগজে কলমে কোথায় ও মদ বিক্রির কথা উল্ললেখ করা নেই ।দাপ্তরিকভাবে মদের ব্যাপারটি একেবারে চেপে যাওয়া হয়েছে ।এই ক্লাবের সদস্য হওয়া কিন্তু মুখের কথা না ।

এই ক্লাবে যদি আপনি জয়েন করতে চান তাহলে আপনাকে প্রচুর পরিমান টাকা খরচ করতে হবে । অনেকের মনে প্রশ্ন হতে পারে এখানকার  সদস্য হতে গেলে কত টাকা লাগে ? এখানে সদস্য হতে গেলে আপনাকে ১০ থেকে ৩০  হাজার মার্কিন ডলার খরচ করতে হবে । বাংলা টাকায় যা ৩০ লক্ষ টাকা । এখানে আবেদন করার প্রায় ১৪ বছর পর্যন্ত সময় লাগতে পারে ক্লাব টিতে জয়েন করতে । সাধারন জনগন এর জন্যে এই জায়গাসটিতে প্রবেশ একেবারেই নিষিদ্ধ এমনকি আইনশৃঙ্খলা বাহিনি ও এখানে চাইলেই ঢুকতে পারেনা ।এখানে ঢুকতে গেলে অবশ্যই উনমতির দরকার পড়বে ।

এম এল এম ব্যাবসা বাংলাদেশে দিনদিন বেড়েই চলেছে । এর থেকে সাবধান থাকুন বিস্তারিত

2 thoughts on “পৃথিবীর সবচেয়ে গোপন ও নিষিদ্ধ ৩টি জায়গা”

  1. Pingback: শিল্পী নোবেল এর রোড এক্সিডেন্ট । - Gazipur Time

  2. Pingback: শিল্পী নোবেল এর রোড এক্সিডেন্ট

Leave a Comment

Your email address will not be published.