সুইস ব্যাংক সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নিন 2021

সুইস ব্যাংক সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নিন 2021

আসসালামুয়ালাইকুম,গাজিপুর-টাইমে আপনাদের শাগতম।আজ আমি আপনাদের সাথে আলোচনা করবো সুইস ব্যাংক সম্পরকে।আমাদের মধ্যে অনেকেই জানেনা সুইস ব্যাংক কি এবং এটা কি কাজে ব্যাবহার করা হয়।এই আরটিকেল টি সম্পূর্ণ পড়লে আশা করি আপনার প্রশ্নের উত্তর পেয়ে যাবেন।

 

সুইস ব্যাংক

পৃথিবীর শীর্ষ ধনীদের নগদ অর্থ বঙ্কসম্পদ জমানোর সবচেয়ে জনপ্রিয় গন্তব্য হলো সুইস-ব্যাক।সুইস ব্যাংক বলতে কোন একটি ব্যাংক কে বোঝায় না,সুইজারল্যন্ডের ব্যাংকিং নিতিমালার অধিনে পরিচালিত প্রায় ২৫০ টি ব্যাংক এবং আর্থিক সেবাদানকারি প্রতিষ্ঠান সম্মিলিত ভাবে সুইস-ব্যাংক নামে পরিচিত।পৃথিবীর বিভিন্ন দেশের অসাধু ব্যাবসায়ী দুর্নীতিবাজ বিত্তশালীদের ট্যাক্স ফাকি দেওয়া অবৈধ সম্পদ জমা রাখার জন্যে সুইস-ব্যাংক বিখ্যাত।প্রায় সব দেশেই এরকম অসাধু লোকজন রয়েছে যারা সুইস-ব্যাংক এর সাথে জড়িত।

 

সুইস ব্যাংক এর ইতিহাস

সুইস-ব্যাংক কি সেটা হয়তো আপনারা বুঝে গেছেন।৩০০ বছরের ও বেশি সময় ধরে সুইজারল্যান্ডের ব্যাংকগুলো গোপনীয়তার সাথে এই কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে।সুইজারল্যান্ডের সকল ব্যাংক নিয়ন্ত্রন করে সুইস ফেডারেল ব্যাংকিং কমিশন।এই ব্যাংকেরএকাউন্ট অন্য সাধারন ব্যাংক এর একাউন্ট এর মতোই কাজ করে। তবে এসব ব্যাংকের প্রধান বৈশিষ্ট্য হলো মুল্ধনের সর্বনিম্ন ঝুকি এবং গ্রাহকের সর্বোচ্চ গোপনীয়তা।১৯৩৪ সালের একটি সুইস আইন অনুযায়ী সুইজারল্যান্ডের ব্যাংক গুলো আমানতকারীর গোপনীয়তা নিশ্চিত করে।

 

সুইস-ব্যাংক গুলোর সাথে আমানতকারীর সম্পর্ক একজন আইনজীবী ও তার মক্কেল এর মত।আইনজীবী যেমন তার মক্কেল এর তথ্যের গোপনীয়তা বজায় রাখে তেমনি সুইস-ব্যাংক ও তাদের গ্রাহকের গোপনীয়তা বজায় রাখে।সুইজারল্যান্ডের কোন ব্যাংক যদি কোন আমানতকারীর তথ্য প্রকাশ করে তাহলে উক্ত ব্যাক্তি সেই ব্যাংকের বিরুদ্ধে আইনি ব্যাবস্থা গ্রহন করতে পারবে।গোপনীয়তা ভঙ্গের দায়ে একজন সুইস ব্যাংকার এর ৬ মাসের জেল এবং ৪৫ লক্ষ টাকা জরিমানা হতে পারে (সর্বোচ্চ)।

সুইস-ব্যাংকের কঠোর গোপনীয়তা এবং নীতিমালার কারনে সারা বিশ্বের অবৈধ অর্থ পাচারের প্রধান গন্ত্যব্যে পরিণীত হয়েছে এই সুইস-ব্যাংক।গোপনীয়তা ছাড়া ও সুইস ব্যাংকের আরো বেশ কিছু সুবিধা আছে যেকারনে পৃথিবীর শীর্ষ ধনকুবের রা এখানে তাদের অর্থ জমা করে।সুইস-ব্যাংক সম্পর্কে আরো বিস্তারিত জানতে ভিজিট করতে পারেন।

 

আরো পড়তে পারেন>>>>>

এম এল এম সম্পর্কে ভয়াবহ তথ্য। এসপিসি

 

 এনেক্স ওয়ার্ল্ড এর অবৈধ কর্মকাণ্ড

 

 

 

Leave a Comment

Your email address will not be published.